মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৭ অক্টোবর ২০১৬

পিপিপি আওতায় কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, সংরক্ষণ ও বিপণন কার্যক্রম

 

কৃষিতে আধুনিক সেচ পদ্ধতি, কৃষি যান্ত্রিকীকরণ, উন্নত বীজ ও কৃষির জন্য বিদ্যমান অনুকূল আবহাওয়ার কারনে কৃষিপণ্যের উৎপাদন সন্তোসজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। তার সাথে তাল মিলিয়ে কৃষি পণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ইন্ডাস্ট্রি তেমনভাবে গড়ে ওঠেনি। ফলে দেশের প্রায় ৩০ শতাংশ মেীসুমি কৃষিপণ্য প্রতি বছর নষ্ট হচ্ছে। যদি যথাযথ এলাকায় কৃষি পণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ইন্ডাস্ট্রি প্রতিষ্ঠা করা যেতো, তাহলে একদিকে যেমন উৎপাদিত ফসল নষ্টের পরিমাণ কমে যেতো, অন্যদিকে কৃষকেরা তাদের ফসলের ন্যায্যমূল্য পেতো। সেই সাথে সৃষ্টি হতো বেকার যুবক ও গ্রামীন নারীদের জন্য কর্মসংস্থানের নতুন ও বৈচিত্রময় ক্ষেত্র। এতে পল্লীর মানুষের ভাগ্যের অনেকটা ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটতো। এ সকল দিক বিবেচনায় নিয়ে একাডেমী প্রায়োগিক গবেষণার অংশ হিসেবে স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত কৃষি পণ্যের ভেল্যু এ্যাড করণের নিমিত্ত পল্লী উন্নয়ন একাডেমীতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত খামারী কর্তৃক উৎপাদিত কৃষিপণ্য ও গবেষণা কর্মসূচির আওতাধীন এলাকায় উৎপাদিত কৃষি পণ্যের সংরক্ষণ, প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সঠিক মূল্য নিশ্চিতকরণে বিপণন সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২০০৭ সালে একাডেমীর সেচ ও পানি ব্যবস্থাপনা কেন্দ্রের অার্থিক সহযোগিতায় কৃষি পণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, সংরক্ষণ ও বিপণন (এপিএম) ইউনিটি প্রতিষ্ঠা করে। বিস্তারিত....

 

 

 

যে সব কৃষক মৌসুমে আলু, মরচি, মূলা, টমেটো, বেগুনসহ নানা সবজির সঠিক মূল্য না পেয়ে হতাশ হয়ে যায় তাদের মুখে হাসি ফোটাবার এই আয়োজনে সীমতি সাধ্যের মধ্যে অতি স্বল্প ব্যয়ে ফুড প্রসেসিং প্ল্যান্টও বাস্তবায়িত হচ্ছে। এই কাজে আরডিএ-কে সহযোগিতা দিচ্ছেন একাডেমীর কৃষি প্রকৌশলীগণ ও ফুড ইঞ্জিনিয়ার। আরডিএর কৃষি প্রকৌশলী ও ফুড প্রকৌশলীবৃন্দের সরাসরি তত্ত্বাবধানে সরকারের পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) এর আওতায় প্রায়োগিক গবষেণার সাফল্য মাঠ পর্যায়ে ছড়িয়ে দিতে নতুন উদ্যেগে ভেল্যু এড টু এগ্রিকালচার কনসেপ্টে স্বল্প পরিসরে স্বয়ংকৃয় ক্ষুদ্র যন্ত্রপাতি বসিয়ে কুটির শিল্পের ন্যায় স্থানীয়ভাবে সংগৃহীত ফলমূল ও সবজি দিয়ে ‘পল্লী ব্রান্ডে’ তৈরি হচ্ছে সর্ম্পূণ ভেজালমুক্ত ও উন্নত মানসম্পন্ন বিভিন্ন কৃষি পণ্য যা নিম্নরূপঃ

  • দুগ্ধজাত পণ্যঃ দুধ, পল্লী পাস্তুরিত দুধ, পল্লী ঘি ইত্যাদি।
  • প্রক্রিয়াজাত কৃষি পণ্যঃ পল্লী তেঁতুলের চাটনি, পল্লী বরই চাটনি, পল্লী জিনজার চাটনি, পল্লী মাশরুম চাটনি, পল্লী আমের আচার, পল্লী রসুনের আচার, পল্লী টমেটো সস, পল্লী অরেঞ্জ জেলি, পল্লী মধু, পল্লী এনার্জি ফ্লাওয়ার সুইট,  পল্লী সয়াকেক, পল্লী চিনিগুঁড়া চাল ইত্যাদি।
  • মসলা জাতীয় পণ্যঃ পল্লী মরিচ গুঁড়া, পল্লী হলুদ গুঁড়া, পল্লী জিরা গুঁড়া ইত্যাদি।
  • তেল জাতীয় পণ্যঃ পল্লী সরিষার তেল, পল্লী রাইচ ব্রান অয়েল ইত্যাদি।

 

 

 

 

RDA Developed Incubator for Automatic Yogurt (dahi) Production

Incubator এর মাধ্যমে সম্পূর্ণ স্বংক্রিয় পদ্ধতিতে  বগুড়া’র ঐতিয্যবাহী দই এখন আরডিএ, বগুড়ায় তৈরী হচ্ছে

 

 

 

Incubator এর বিবরণঃ

  • সাইজঃ  দৈর্ঘ্য- ৮‌‌‍’ x প্রস্থ ৮’ x - উচ্চতা -৮’
  • বডিঃ এম এস বক্স পাইপ দ্বারা ষ্ট্রাকচার।
  • ইনস্যুলেটরঃ মাঝে গ্যাস ফাইবার উল। দুই পার্শ্বে ২.৭৫ মি. মি. ফাইবার সিট দ্বারা ঢাকা।
  • কন্ট্রোলিং : অটো ডিজিটাল কন্ট্রোল সিস্টেম।
  • বিদ্যুৎঃ ২২০ V ৫ KW
  • মোটরঃ ২২০ V  ১ HP চায়না।
  • ট্রলিঃ ৫০০ পিস সরা (কাপ, বাটি ইত্যাদি দেওয়া যাবে) দই ধারণ মতা, ড্রয়ার সিস্টেম। বক্স পাইপের বড়ি, জিপি সিট দ্বারা ড্রয়ার, বিয়ারিং সিস্টেম।
  • হিটিং সিস্টেমঃ টিউব হিটার ৪টি প্রতিটি ১২০০ ওয়াট (৪ x ১২০০=৪৮০০ ওয়াট)

 

সুবিধাদি

  • স্বয়ক্রিয়ভাবে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ (৯৯%)
  • প্রতি ব্যাচে (৪ ঘন্টায়) ৫০০টি সরা দই ও ১০০০ পিচ কাপ দই উৎপাদনে সক্ষম
  • স্যান্ডুইচ প্যানেলে তৈরী হওয়ায়, যে কোন সময় স্থানামত্মর সম্ভব
  • সিঙ্গেল ফেজ ইলেকট্রিসিটিতেও ব্যবহার উপযোগী
  • তুলনামূলক জায়গা কম লাগে (মাত্র ২ শতাংশ জায়গায়ই যথেষ্ট)
  •  বগুড়ার ঐতিহ্যবাহী দই (টক-মিষ্টি), খিরসাসহ বিভিন্ন অঞ্চলের যেকোন ধরণের দই উৎপাদন সম্ভব।
  • প্রতিটি দইয়ের গুণগতমান বজায় থাকে (কালার, ফেস্নভার, টেক্সার পরিবর্তন হয় না)
  •   পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় থাকায় সহজে বিএসটিআই অনুমোদন প্রাপ্তি সম্ভব
  • স্বয়ক্রিয়ভাবে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ হওয়ায় উচ্চ বেতনভুক্ত কারিগরের প্রয়োজন নেই।

 

মিনি পানি বিশুদ্ধকরণ (RO) প্ল্যান্ট 

 

Food Processing Experience.pdf Food Processing Experience.pdf

Share with :