মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ মার্চ ২০২২

বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আরডিএ, বগুড়ায় ৭ মার্চ “জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস”-২০২২ পালিত


প্রকাশন তারিখ : 2022-03-07

 

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ: বাঙালির চিরঞ্জীব অনুপ্রেরণার মহাকাব্য

"পৃথিবীর ইতিহাসে যতদিন পরাধীনতা থেকে মুক্তির জন্য সংগ্রাম থাকবে, ততদিন শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণটি বিশ্বের মুক্তিকামী মানুষের মনে চির জাগরূক থাকবে।"
       - ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এডওয়ার্ড হিথ
               
আজ ৭ মার্চ 'জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস'। ১৯৭১ সালের এই দিনে ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) পাকিস্তানি শাসকদের শোষণ ও অত্যাচারে নিপীড়িত নিষ্পেষিত সাড়ে সাত কোটি বাঙালিকে মুক্তির সংগ্রামে উদ্দীপ্ত করেছিলেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। একাত্তরে মার্চের এই অগ্নিঝরা দিনে উত্তাল জনস্রোতের মাঝে, এ রকম একটি ভারসাম্যপূর্ণ, দিকনির্দেশনামূলক ভাষণই শেখ মুজিবকে অনন্য এক ভাবমূর্তি দিয়েছে। দিয়েছে অনন্য মহান নেতার মর্যাদা। জাতির পিতার ৭ মার্চের ভাষণ আজ শুধু বাংলাদেশের একক সম্পদ নয়, এটি এখন বিশ্ব মানবতার মুক্তির প্রামাণ্য দলিল। ৩০ অক্টোবর ২০১৭ ইউনেসকো এ ভাষণকে বিশ্ব–ঐতিহ্য সম্পদ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে ‘দ্য ইন্টারন্যাশনাল মেমোরি অব ওয়ার্ল্ড রেজিস্টার’–এ অন্তর্ভুক্ত করেছে।
ঐতিহাসিক ৭ ই মার্চ,২০২২ জাতীয় দিবস হিসেবে যথাযথভাবে উদযাপনের লক্ষ্যে পল্লী উন্নয়ন একাডেমী (আরডিএ) বগুড়া কর্তৃক দিনব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন। সকাল ৯.০০ ঘটিকায় একাডেমি প্রাঙ্গণে জাতির পিতার স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন পল্লী উন্নয়ন একাডেমী (আরডিএ), বগুড়ার সম্মানিত মহাপরিচালক ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অতিরিক্ত সচিব জনাব খলিল আহমদ ও অন্যান্য অনুষদ সদস্যবৃন্দ। এরপর পর্যায়ক্রমে একাডেমিতে কর্মরত বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, আরডিএ ল্যাবরেটরী স্কুল ও কলেজের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রী, প্রশিক্ষণরত বিভিন্ন বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ কোর্সের প্রশিক্ষণার্থীবৃন্দ বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পরবর্তীতে আরডিএ ল্যাবরেটরী স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ডকুমেন্টারি ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
মহাপরিচালক মহোদয় তাঁর সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে জাতীয় জীবনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন "৭ মার্চের ভাষণ ছিল বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারী। এ ভাষণের মাধ্যমেই বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।" এছাড়াও তিনি মহান স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস জানার জন্য তরুণ প্রজন্মের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।
    
    
    
    
    
    
    
    


Share with :

Facebook Facebook