মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৯ জুন ২০২২

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ‘পল্লী জনপদ’ প্রকল্পের আওতায় সমবায়ভিত্তিক বহুতল ভবন উদ্বোধন


প্রকাশন তারিখ : 2022-06-16
আজ বৃহস্পতিবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পল্লী উন্নয়ন একাডেমী,বগুড়া কর্তৃক বাস্তবায়িত রংপুরের “পল্লী জনপদ” এবং গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় “বঙ্গবন্ধু দারিদ্র্য বিমোচন ও পল্লী উন্নয়ন একাডেমী (বাপার্ড)” উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

আজ ১৬ জুন, ২০২২ সকাল সাড়ে ১১ টায়  গণভবন থেকে ভার্চুয়াল প্লাটফরমে যুক্ত হয়ে পল্লী উন্নয়ন একাডেমী,বগুড়া  কর্তৃক বাস্তবায়িত  রংপুরের পল্লী জনপদ এবং  গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় ‘বঙ্গবন্ধু দারিদ্র্য বিমোচন ও পল্লী উন্নয়ন একাডেমী (বাপার্ড) উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
 
 স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মো. মশিউর রহমান শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন।
 
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাপার্ড গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া প্রান্তে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী জনাব  মো. তাজুল ইসলাম।
এ সময় বাপার্ড প্রান্তে আরও যুক্ত ছিলেন  বাপার্ড বোর্ডের সিনিয়র উপদেষ্টা প্রধানমন্ত্রীর চাচা শেখ কবির হোসেন ও বাপার্ডের মহাপরিচালক সৈয়দ রবিউল আলমসহ অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। 
 
রংপুরে পল্লী জনপদ প্রান্তে যুক্ত ছিলেন 'পল্লী জনপদ' প্রকল্প বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান পল্লী উন্নয়ন একাডেমী,বগুড়া'র মহাপরিচালক(অতিরিক্ত সচিব)জনাব খলিল আহমদ। সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক,প্রকল্পের উপকারভোগীগণ,  রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ   সহ অন্যান্য জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। 
 
বাংলাদেশের মতো জনবহুল দেশে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য কৃষি জমি সংরক্ষণের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।  বাংলাদেশে কৃষি জমি ব্যবহার করে যত্রতত্র শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপন এবং ঘরবাড়ি নির্মাণ করায় কৃষি জমি প্রতি বছর এক শতাংশ হারে হ্রাস পাচ্ছে। কৃষিজমি রক্ষার্থে কার্যকর উপায় হিসেবে  আধুনিক নাগরিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন সমবায়ভিত্তিক পল্লী জনপদ প্রকল্পের আওতায় বহুতল বিশিষ্ট ভবন নির্মাণ করা হয়েছে । এই উদ্যোগটি একদিকে যেমন গ্রামীণ জনগণের উন্নত আবাসনের ব্যবস্থা করছে অন্যদিকে প্রাকৃতিক ও মানবসৃষ্ট বিপর্যয়ের কারণে আবাদি জমির পরিমাণ কমে যাওয়া এবং উৎপাদন ক্ষমতা হ্রাসের প্রবণতা রোধ করবে। 
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বপ্ন দেখেছিলেন বাংলাদেশের গ্রামীণ জনগোষ্ঠী আধুনিক সমবায়ভিত্তিক আধুনিক বহুতল ভবনে একসাথে বসবাস করবে।এ প্রেক্ষাপটে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর একটি উল্লেখযোগ্য দর্শন 'আমার গ্রাম আমার শহর' বাস্তবায়নে পল্লী জনপদ প্রকল্পটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে।  পল্লী উন্নয়ন একাডেমী,বগুড়া কর্তৃক বাস্তবায়িত 'পল্লী জনপদ' নামক প্রয়োগিক গবেষণা ধর্মী প্রকল্পটির সফল বাস্তবায়নের ফলে গ্রামে শহরেরসুযোগ-সুবিধা প্রদানের মাধ্যমে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর গ্রাম থেকে শহরে মাইগ্রেশনের প্রবণতাও   উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাস পাবে।
 
অনুষ্ঠানে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট একটি ভিডিও চিত্রও প্রদর্শন করা হয়।

        

    

    



Share with :

Facebook Facebook