মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৭ এপ্রিল ২০১৯

৯ম আন্তর্জাতিক কৃষি প্রযুক্তি “Agro Tech Bangladesh-2019” মেলা


প্রকাশন তারিখ : 2019-04-05

    

    

    

পল্লী  উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের আওতায় পল্লী উন্নয়ন একাডেমী, বগুড়া এবং লিমরা ট্রেড ফেয়ারস্ এন্ড এক্সিবিশনস্ প্রাঃ লিঃ, ঢাকা যৌথ উদ্যোগে ০৪-০৬ এপ্রিল, ২০১৯ মেয়াদে আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি, বসুন্ধরা, কুড়িল, ঢাকায় ৯ম আন্তর্জাতিক কৃষি প্রযুক্তি “অমৎড় ঞবপয ইধহমষধফবংয- ২০১৯” মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।  
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব তাজুল ইসলাম, এমপি বলেন,  “কৃষি নির্ভর বাংলাদেশের অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি হচ্ছে কৃষি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে কৃষি ও ভাগ্যাহত কৃষককূলের উন্নয়নে বাস্তবায়িত হচ্ছে বিভিন্ন কর্মসূচী। দেশের সংকটকালীন মূহুর্তে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি উন্নয়নে যে রূপরেখা প্রদান করেছিলেন পরবর্তীতে তা দেশের খাদ্য নিরাপত্তা ও স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনে সক্ষম হয়েছিল।এরই ধারাবাহিকতায় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন পল্লী উন্নয়ন একাডেমী, বগুড়া সরকারের Public-Private Partnership (PPP) Concept –এর আলোকে স্বনামধন্য বেসরকারি প্রতিষ্ঠান LIMRA TRADE FAIRS & EXHIBITIONS PVT. LTD., Dhaka এর যৌথ উদ্যোগে আন্তর্জাতিক কৃষি প্রযুক্তি মেলার আয়োজন করেছে যেখানে ভারত, চীন, ভিয়েতনাম, থাইল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া, ফিলিপাইন এবং সুইজারল্যান্ডসহ কৃষি সংশ্লিষ্ট দেশীয় নামী-দামী কোম্পানী ও উদ্যোক্তা, গবেষক, প্রস্তুতকারক, আমদানিকারক, আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি প্রদর্শন ও সম্প্রসারণে এগিয়ে এসেছেন জেনে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। যে কোন আন্তর্জাতিক মেলায় ব্যবসার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাজারে আয়োজক দেশের ভাবমূর্তিও উজ্জল করবে যা আমাদের কৃষি ও সংস্কৃতিকে বর্হিবিশ্বের সামনে পরিচিতি লাভে বহুলাংশে সহায়ক হবে। 
তিনি আরো বলেন, ”আমাদের সরকার কৃষিকে মূল খাত হিসেবে চিহ্নিতকরণের পাশাপাশি কৃষকের বিশেষতঃ ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের কাছে কৃষি উপকরণের সহজ লভ্যতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বেশ কিছু মৌলিক কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি, কৃষককে স্বাবলম্বি করা এবং তাদের দরিদ্রতা কমিয়ে আনার লক্ষ্যে কৃষি খাতকে  অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। মেলায় প্রদর্শিত কৃষি যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি কৃষক সমাজকে কৃষি যান্ত্রিকীকরণে উৎসাহদানের পাশাপাশি উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি পাবে এবং লাভজনক ও টেকসই কৃষি উৎপাদন ব্যবস্থা নিশ্চিত হবে আমি আশাবাদী।”
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ মাহফুজুল হক, চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ফুড সেফটি অথরিটি (বিএফএসএ) বলেন “দেশকে এগিয়ে নিতে কৃষির আধুনিকায়ন অত্যন্ত প্রয়োজন।নতুন নতুন কৃষি প্রযুক্তি উদ্ভাবনের পাশাপাশি লাগসই প্রযুক্তি কৃষকের কাছে সহজলভ্য হতে হবে। ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে হবে । আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি যে, আমাদের দেশে শিক্ষিত বেকার যুব সম্প্রদায়কে উদ্ধুদ্ধ করে যদি স্থানীয় পর্যায়ে কৃষি প্রযুক্তি নির্ভর ব্যবসাতে সংযুক্ত করা যায় তাহলে আমাদের বেকার সমস্যার সমাধান করা সম্ভব।”

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতি সভাপতির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের মাননীয় সচিব জনাব মোঃ কামাল উদ্দিন তালুকদার তার বক্তব্যে বলেন, “বিশ্বায়নের এ যুগে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তুলতে আধুনিক কৃষির কোন বিকল্প নাই। বর্তমান সরকার ৭ম পঞ্চম বার্ষিকী পরিকল্পনা বাস্তবায়নের পাশাপাশি টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে সচেষ্ট। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে সরকার দারিদ্র্য ও ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়ার জন্য একদিকে যেমন কৃষি উৎপাদনে আগ্রহী তেমনি পরিবেশ সংরক্ষণ ও জলবায়ু পরিবর্তনে বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় সচেতন। সরকার পরিবেশ বান্ধব কৃষি প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও ব্যবহারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আসছে। আমি বিশ্বাস করি সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ, পল্লী উন্নয়ন একাডেমী, বগুড়া এবং LIMRA Trade Fairs & Exhibitions Pvt. Ltd. এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এ মেলা কৃষি যন্ত্রপাতি তৈরী ও আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতির বাজার সম্প্রসারণের মাধ্যমে দেশীয় প্রযুক্তির প্রসার ও প্রচারে সফল হবে এবং জাতীয় অর্থনীতিতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে আমি আশাবাদী। ”
মেলার উদ্বোধনী  অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পল্লী উন্নয়ন একাডেমী, বগুড়া’র মহাপরিচালক ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অতিরিক্ত সচিব জনাব মোঃ আমিনুল ইসলাম, স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন প্রকৌশলী মো: নজরুল ইসলাম খান, পরিচালক, প্রকল্প পরিকল্পনা ও পরিবীক্ষণ বিভাগ, পল্লী উন্নয়ন একাডেমী, বগুড়া এবং জনাব কাজী ছারোয়ার উদ্দীন, পরিচালক, লিমরা ট্রেড ফেয়ারস্ এন্ড এক্সিাবিশনস্ লি:, ঢাকা । 
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত   আন্তর্জাতিক এ আয়োজনে আধুনিক কৃষি প্রযুক্তির সকল ক্ষেত্রে বিশেষত: Agro Machinery and Seed Expo, Grain Tech Expo, Dairy & Poultry Expo, Beverage Foods & Technology Expo, Renewable Energy and Light Engineering Expo  ইত্যাদি অন্তর্ভূক্ত থাকবে। আন্তর্জাতিক এ মেলায় প্রযুক্তি প্রদর্শনের পাশাপাশি গবেষক, প্রস্তুতকারক, সরবরাহকারী, সম্প্রসারণ কর্মী এবং প্রযুক্তি ব্যবহারকারী ও কৃষকদের মিলন মেলায় পরিণত হবে। মেলার কর্মসূচিতে সেমিনার ও গোল টেবিল আলোচনা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও অন্তর্ভূক্ত থাকবে। আশা করা যাচ্ছে দেশীয় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি আর্ন্তজাতিক এ মেলায় ভারত, চীন, নেপাল, পাকিস্তান, ভিয়েতনাম, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, নেদারল্যান্ড, অষ্ট্রেলিয়া, জাপান, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করবে।  
উল্লেখ্য,  ২০১১ সাল হতে প্রতি বছর পল্লী উন্নয়ন একাডেমী, বগুড়া এবং LIMRA TRADE FAIRS & EXHIBITIONS PVT. LTD. এর যৌথ ভাবে “Agro Tech Bangladesh” আন্তর্জাতিক কৃষি প্রযুক্তি মেলার আয়োজন করে আসছে। PPP Concept  –এর আলোকে এ মেলার সাফল্যের ধারাবাহিকতার জন্য সম্প্রতি গত ১১ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ ও LIMRA TRADE FAIRS & EXHIBITIONS PVT. LTD. এর মধ্যে একটি এমওইউ  স্বাক্ষরিত হয়েছে যার ভিত্তিতে এ বছর’সহ আগামী বছরেও অনুরূপ আন্তর্জাতিক কৃষি প্রযুক্তি মেলা অনুষ্ঠিত হবে।  



Share with :

Facebook Facebook