মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৪ এপ্রিল ২০১৭

সমাপ্ত পরামর্শ সেবা

 

আরডিএ, বগুড়া’র মূল দায়িত্বাবলীর মধ্যে এডভাইজারি সার্ভিসেস একটি অন্যতম। এডভাইজারি সার্ভিসেস এর আওতায় সরকারসহ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে পরামর্শ সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। এ সকল এডভাইজারি সার্ভিসেস মধ্যে উল্লেখযোগ্য, হচ্ছে দেশের সর্ববৃহৎ সার কারখানা যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিঃ, জামালপুরে ভূর্গস্থ পানি উত্তোলন ও পরিশোধনের মাধ্যমে (৯২০ মেট্রিক টন প্রতি ঘন্টা) নিরবিচ্ছিন্ন সার উৎপাদন ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণ; চট্রগ্রাম ইপিজে কর্ণফুলী নদী থেকে উত্তোলকৃত লবনাক্ত পানি Reverse Osmosis প্রক্রিয়ায় পরিশোধনের মাধ্যমে লবনাক্ততা ও বিভিন্ন ক্ষতিকারক উপাদান সহনীয় মাত্রায় এনে নিরাপদ পানি সরবরাহ। হেমায়েতপুর সাভার, ঢাকায় পরিবেশ বান্ধব চামড়া শিল্প নগরীতে পানি সরবরাহের (ট্যানারী ও খাবার পানি গুনগতমানে) জন্য ধলেশ্বরী নদী/ভূ-গর্ভস্থ পানি নির্ভরযোগ্য মাত্রায় দেশে সর্বপ্রথম Pressurized পদ্ধতিতে (Without Overhead Tank) ঘন্টায় ১০০০০০ লিটার পানি সরবরাহ প্রকল্প কার্যক্রম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এছাড়াও  আরডিএ’র সেচ ও পানি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক উদ্ভাবিত প্রযুক্তিসমূহ বিভিন্ন জিও (ডিএই, এলজিইডি, পিডিবি, আরইবি, ডিপিএইচই, বিএমডিএ, সেতু কর্তৃপক্ষ, জেএফসিএল, বিসিক) এনজিও (ব্র্যাক, প্রশিকা, জিকেএফ)-তে সম্প্রসারণ করা হয়েছে। (বিস্তারিত....)। 

 

উল্লেখযোগ্য সমাপ্ত পরামর্শ সেবাসমূহঃ

বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব এবং পশ্চিম তীরে এবং সেতুর দুই পাশের পূনঃর্বাসন এলাকায় নিরাপদ পানি সরবরাহ

১৯৯৮ সালে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব এবং পশ্চিম তীরে এবং সেতুর দুই পাশের পূনঃর্বাসন গ্রামে বসবাসরত জনগোষ্ঠীর জন্য আরডিএ, বগুড়া ৭টি গভীর নলকূপ এবং ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট (১৫ হাজার লিটার ক্ষমতা সম্পন্ন) স্থাপন করে বাংলাদেশ তথা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানে সরবরাহ করে। যেখানে প্রতিটি গভীর নলকূপ ও ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপনে ব্যয় হয়েছিল যথাক্রমে ২.০০ লক্ষ এবং টাকা ৩.৪০ লক্ষ মাত্র। এ কাজ বিদেশীদের মাধ্যমে সম্পন্ন করা কথা ছিল এবং সেখানে একই ক্ষমতার প্রতিটি গভীর নলকূপ এবং  ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপনে ব্যয় ধরা হয়েছিল যথাক্রমে টাকা ১৭.০০ লক্ষ এবং টাকা ৩৭.০০ লক্ষ। 

 

যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড শিল্প কারখানা উপযোগী পানি সরবরাহ

দেশের  সর্ববৃহৎ সার কারখানা ‘‘যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড’’ তারাকান্দি, জামালপুরে (১৯৯৯-২০০০ সনে) সারা বছর নিরবিচ্ছিন্ন সার উৎপাদন ব্যবস্থা চালু রাখার স্বার্থে পল্লী  উন্নয়ন একাডেমী, বগুড়াকে  তৎকালীন এবং বর্তমান মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর শেখ হাসিনার নির্দেশে সাতটি গভীর নলকূপসহ ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট যা ঘন্টায় ৭২০ মেঃ টন পানি পরিশোধন পূর্বক ইউরিয়া সার উৎপাদন ও খাবার পানির গ্রহণযোগ্য মানে সরবরাহ করতে সক্ষম হয়েছে। উক্ত প্লান্টটি কম্পিউটারিইজ (অটোমেটিক) সিস্টেমে এখন  চলছে। উক্ত কাজ বৈদেশিক প্রযুক্তিতে ৭২.০০ কোটি টাকায় করার কথা থাকলেও আরডিএ, বগুড়া মাত্র ৩.২৫ কোটি টাকায় সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছে। 

 

কর্ণফুলি রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ জোনে পানি সরবরাহ

কর্ণফুলি ইপিজেড, চট্রগ্রামে শিল্প কারখানাসমূহ দীর্ঘদিন প্রয়োজনীয় পরিমান ও মানসম্পন্ন পানির তীব্র সংকট দেখা দেয়ায় অনেক কোম্পানীর মানসম্মত উৎপাদন ব্যবস্থা বন্ধ হওয়ার উপক্রম হলে। এ সমস্যা সমাধানে সরকারীভাবে বৈদেশিক প্রযুক্তি গ্রহণের মাধ্যমে কর্ণফুলি নদীর পানি পরিশোধনপূর্বক ইপিজেড এলাকায় সরবরাহের নিমিত্ত ৬১.০০ কোটি টাকা ব্যয়ের সম্পন্ন করার পরিকল্পনা গৃহীত হয়। কিন্তু তৎকালীন প্রধান মন্ত্রীর নির্দেশে আরডিএ, বগুড়া ২০০৮ সালে  Reverse Osmosis প্রক্রিয়ায় কর্ণফুলির লবনাক্ত পানি পরিশোধন দৈনিক ২০ লক্ষ গ্যালন পানি পরিশোধন করে খাবার ও কারখানায় ব্যবহার উপযোগী মানে এনে ইপিজেড এলাকায় চাহিদামাফিক সরবরাহ করে । এ কাজে আরডিএ, বগুড়া মাত্র ১৯.৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছে। যার ফলে দেশের বিপুল অংকের অর্থ সাশ্রয় করা হয়েছে। প্রসংগত উল্লেখ্য যে, প্লান্টটি সম্পূর্ণভাবে অটোমেটিক যা চট্টগ্রাম বাসীর দৃষ্টি গোচর হওয়ায় এবং মঙ্গলা বন্দর কর্তৃপক্ষ তাদের নিজস্ব এলাকায় অনুরূপ একটি প্লান্ট স্থাপনে একাডেমীকে অনুরোধ করে যা অনুমোদনের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। 

 

 

চামড়া শিল্প নগরী, সাভারে পানি সরবরাহ

সাভার, ঢাকায় দেশের প্রথম পরিবেশ বান্ধব চামড়া শিল্প নগরী হিসেবে স্থানান্তরের ব্যবস্থা গৃহীত হয়। উক্ত ট্যানারী শিল্প নগরীতে পানি সরবরাহের (ট্যানারী ও খাবার পানি গুনগতমানে) দায়িত্ব আরডিএ, বগুড়াকে প্রদান করা হয়। উক্ত এলাকায় ধলেশ্বরী নদী/ভূ-গর্ভস্থ পানি নির্ভরযোগ্য মাত্রায় দেশে সর্বপ্রথম Pressurized পদ্ধতিতে (Overhead Tank ছাড়া) ঘন্টায় ৯৫০ ঘনমিটার পানি সরবরাহ কাজ সমাপ্ত হয়েছে। এখানে উল্লেখ্য যে, উক্ত কাজ একাডেমীর সেচ প্রকৌশলীদের নিরলস প্রচেষ্টায় বিসিক কর্তৃক আহবানকৃত টেন্ডার মূল্যের তিন ভাগের একভাগ ব্যয়ে অর্থাৎ মাত্মোর টাকা ২৪৬২.৮৪ লক্ষ টাকায় করা  সম্ভব হচ্ছে।

 

 

উপকূলীয় অঞ্চলে মিঠাপানি সরবরাহ

HYSAWA-Fund এর অর্থায়নে খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলার ৮১টি ইউনিয়নে আরডিএ উদ্ভাবিত গ্রামীণ নিরাপদ পানি সরবরাহ মডেল সম্প্রসণের নিমিত্ত প্রায় টাকা ৬০০০.০০ লক্ষ ব্যয়ে পাইপ লাইনের মাধ্যমে নিরাপদ খাবার পানি সরবরাহ চলছে। ইতোমধ্যে ২৬টি গ্রামে উল্লেখিত মডেল বাস্তবায়িত হয়েছে এবং অবশিষ্ট এলাকায় প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। যা বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইস্তেহার-২০১১ সালের মধ্যে ‘সবার জন্য সুপেয় পানি’ সরবরাহ নিশ্চিত করার প্রকৃত বাস্তবায়ন।

 

বড় পুকুরিয়া কয়লাখনি এলাকায় সেচ ও নিরাপদ খাবার পানি সরবরাহ

বড় পুকুরিয়া কয়লাখনি নির্ভর তাপ বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের স্থাপিত গভীর নলকূপ হতে পানি উত্তোলনের ফলে ঐ অঞ্চলে ভূ-গর্ভস্থ একুইফার নিম্নগামী হওয়ার ফলে পার্শ্ববর্তী পাঁচটি গ্রামে পানীয় জলের তীব্র সংকট দেখা দেয়। গত ৩৭তম বোর্ড সভার সিদ্ধান্তের আলোকে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন ও প্রাদুর্ভাবের কারণ একাডেমী চিহ্নিত করে। পরবর্তীতে বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী একাডেমীর সেচ ও পানি ব্যবস্থাপনা কেন্দ্র নিজস্ব অর্থায়নে ক্ষতিগ্রস্ত ইউসুফপুর গ্রামে গ্রামীণ পাইপড ওয়াটার সাপ্লাই মডেলে নিরাপদ পানি সরবরাহ করার ফলে ফলে উক্ত গ্রামের জনগোষ্ঠীর দীর্ঘ্য দিনের পানীয় জলের অভাব মেটানো সম্ভব হয়েছে।

পরবর্তীতে এ এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ আরো ০৪ (চার) টি গ্রামে (উত্তর শেরপুর, দক্ষীণ শেরপুর, দুধিপুর এবং মধ্য রামভদ্রপুর) বাংলাদেশ বিদ্যুৎ বোর্ড (বিউবো) অর্থায়নে ১৩১.৬৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে সেচ ও নিরাপদ পানি সরবরাহের কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। 

 

 

Completed Survey on Muhuri and Manu River Irrigation Project’; Sponsored by: Developing Innovative Approaches to Management of Major Irrigation Systems (DIAMMIS) (ADB Project TA No. - 7260)

 

সমাপ্ত কনসালটেন্সি/পরামর্শ সেবার তালিকা ৱ(২০১৭-১৮ অর্থ বছর)

 

 

  1. আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনষ্টিটিউট, ময়মনসিংহ
  2. আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ ও পানি সরবরাহের জন্য পাইপলাইন স্থাপন প্রকল্প, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট
  3. পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ, ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টসহ পানি সরবরাহ অবকাঠামো স্থাপন প্রকল্প
  4. আব্দুল মোনেম ইকোমিক জোন, গাজারিয়া, মুন্সিগঞ্জে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  5. এ্যাকটিভ ফার্মাসিটিক্যালস ইনগ্রেডিয়েন্ট (এপিআই), গাজারিয়া, মুন্সিগঞ্জে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  6. বাংলাদেশ লাইভষ্টক রিসার্চ ইন্সটিটিউশন (বিএলআরআই), ফরিদপুরে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প।
  7. বাংলাদেশ লাইভষ্টক রিসার্চ ইন্সটিটিউশন (বিএলআরআই), যশোরে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  8. জিএমডি, পিজিসিবি সাব-ষ্টেশন, শাহজাদপুর, সিরাজগঞ্জে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  9. কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি), গাইবান্ধায় আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  10. বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়সনসিংহে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  11. বাংলাদেশ স্মল কর্টেজ ইন্ডাষ্ট্রি কর্পোরেশন (বিএসসিআইসি), স্টেট, শ্রীমঙ্গলে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  12. ৬৬০ মেগাওয়াট কয়েল বেইজডপাওয়ার ষ্টেশন, রামপাল, বাগেরহাটে (২য় পর্যায়) আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ ও ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট  স্থাপন প্রকল্প
  13. ঘোড়াশাল ইউরিয়া ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরী, নরসিংগিতে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  14. বাংলাদেশ ফিশারিজ রিসার্চ ইন্সটিটিউট, চাঁদপুরে আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ ও ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট  স্থাপন প্রকল্প
  15. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাইন্স এন্ড টেকনোলজি ইউনিভারসিটি, গোপালগঞ্জে (২য় পর্যায়) আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ ও ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট  স্থাপন প্রকল্প
  16. টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার, গাইবান্ধায় আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ ও ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট  স্থাপন প্রকল্প
  17. পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি (পিবিএস), গাইবান্ধায় আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  18. সোনারগাঁ পাওয়ার গ্রীড কোম্পানী বাংলাদেশ, সোনারগাঁও এ আরডিএ-উদ্ভাবিত গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  19. বিদ্যুৎ উন্নয়ন কেন্দ্র (পিডিবি), ঘোড়াশাল, পলাশ, নরসিংদিতে গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প
  20. মেঘনা গ্যাস ফিল্ড, বাঞ্চারামপুর, বি-বাড়িয়ায় আরডিএ-উদ্ভাবিত ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট  স্থাপন
  21. বিসিক মিরেশ্বরায়, চট্রগ্রামে পর্যাবেক্ষণ নলকূপ স্থাপন।

 

এছাড়াও একাডেমী জন্মলগ্ন থেকে এডভাইজারি সার্ভিসেস এর আওতায় সরকারসহ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে পরামর্শ সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। একাডেমী কর্তৃক সম্পাদিত পরামর্শ সেবাসমূহের তালিকা নিম্নরূপঃ

সমাপ্ত পরামর্শ সেবাসমূহের তালিকা সমাপ্ত পরামর্শ সেবাসমূহের তালিকা

Share with :