মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩rd সেপ্টেম্বর ২০১৯

কুড়িগ্রাম ও জামালপুর জেলার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর দারিদ্র্য হ্রাসকরণ শীর্ষক প্রকল্প

প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হলো হতদরিদ্র ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠির দারিদ্র্য বিমোচনের মাধ্যমে সমাজের মূল স্রোতধারায় সম্পৃক্ত করা। একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প ও চর জীবিকায়ন কর্মসূচি (সিএলপি) -এর আলোকে সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠিকে দারিদ্র্যতা থেকে উন্নীত (Graduation from Poverty) করার মাধ্যমে প্রস্তাবিত প্রকল্পটি বাংলাদেশ সরকারের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

প্রকল্পের সুনির্দিষ্ট উদ্দেশ্যাবলী হলোঃ

(ক) হতদরিদ্র ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠির জন্য নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা;

(খ)   দক্ষতা উন্নয়ন (skill development) প্রশিক্ষণ, সম্পদ হস্তান্তর (asset transfer) ও উন্নত কৃষি প্রযুক্তি হস্তান্তরের মাধ্যমে হতদরিদ্র জনগোষ্ঠির আয় বৃদ্ধি করা ও উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলা;

(গ)   কৃত্রিম প্রজনন (Artificial Insemination [AI]) প্রযুক্তি ও আইসিটি নির্ভর প্রাণিসম্পদ ব্যবস্থাপনার (ICT Based Livestock Management) মাধ্যমে গবাদিপ্রাণির জাত উন্নয়ন করা; এবং

(ঘ)   প্রকল্প সুবিধাভোগীদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার (যেমনঃ স্বাস্থ্য, পুষ্টি, নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন, সামাজিক সচেতনতা, নারীর ক্ষমতায়ন) উন্নয়ন ঘটানো।

 

বাস্তবায়নকারী সংস্থা (সংস্থা):

পল্লী উন্নয়ন একাডেমী (আরডিএ), বগুড়া।

বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড (বিআরডিবি), সমবায় অধিদপ্তর এবং সংশ্লিষ্ট জেলা ও উপজেলা প্রশাসন প্রকল্পের সুবিধাভোগী নির্বাচন ও দল গঠনে সহযোগী সংস্থা হিসেবে কাজ করবে। আরডিএ, বগুড়া’র পাশাপাশি বিআরডিবি সচেতনতা ও দক্ষতামূলক প্রশিক্ষণ প্রদান এবং সমবায় অধিদপ্তর কৃষি ও হস্তশিল্প পণ্যের বাজারজাতকরণে সহায়তা করবে।

 

পরিকল্পনা কমিশনের সংশ্লিষ্ট বিভাগ : কৃষি, পানি সম্পদ ও পল্লী প্রতিষ্ঠান বিভাগ

 

প্রকল্পের বাস্তবায়নকাল

 

 

ক) শুরুর তারিখ 

:

০১ জুলাই, ২০১৮

খ) সমাপ্তির তারিখ

:

৩০ জুন, ২০২১

প্রকল্পের প্রাক্কলিত ব্যয় (লক্ষ টাকায়)

মোট

:

 ১৯৬১৫.৩৫

      জিওবি

:

১৯৬১৫.৩৫

 

প্রকল্প এলাকা

:

কুড়িগ্রাম ও জামালপুর জেলার নিম্নবর্ণিত ০৮টি উপজেলায় প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে।

 

বিভাগ

জেলা

উপজেলা

রংপুর

কুড়িগ্রাম

নাগেশ্বরী, রাজারহাট, উলিপুর, চিলমারী উপজেলা

ময়মনসিংহ

জামালপুর

দেওয়ানগঞ্জ, ইসলামপুর, মেলান্দহ, মাদারগঞ্জ উপজেলা

 

প্রকল্পের মূল কর্মকান্ডঃ

  • সম্পদ হস্তান্তর (Asset Transfer) কার্যক্রমের আওতায় ৮টি উপজেলার ২৫ হাজার হত দরিদ্র জনগোষ্ঠির মাঝে গবাদিপ্রাণী-গরম্ন বিতরণ এবং বিতরণ পরবর্তী প্রতি পরিবার ৬ মাস ৫০০/- টাকা হারে (গবাদিপশু পালনের জন্য) এবং এককালীন গবাদিপশু চিকিৎসা ও প্রজননক্ষম করতে ৩৫০/- টাকা সহায়তা দেয়া হবে।
  • কৃত্তিম প্রজননের জন্য ১০টি উন্নত বুল/গাভি সংগ্রহ; উন্নত গো-খাদ্য তৈরী ও বিতরণ;
  • আট উপজেলার ৮টি স্থানে কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাত ও সংরক্ষণ সেন্টার (চাল ও আটা মিল, স্পোয়লার, মধু প্রক্রিয়া, মাছ ও মাংশ, ফলমূল ও সবজি, দুধ চিলিং প্ল্যান্ট) স্থাপন;
  • কৃষি পণ্য বাজারজাতকরণ, প্রক্রিয়াজাতকরণ সেন্টারের জন্য ৪ একর ভূমি অধিগ্রহণ/ক্রয়;
  • বর্জ্য ব্যবস্থাপায় ৮টি কমিউনিটি বায়োগ্যাস পস্ন্যান্ট স্থাপন ও জৈবসার প্রসেসিং ও প্যাকেজিং ব্যবস্থা;
  • ১৬টি মৎস্য খামার স্থান এবং ৮টি উপজেলার ৬৪০ জন সুফলভোগীকে মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে সহযোগীতা প্রদান করা;
  • স্থানীয় পর্যায়ে  ১৮২ জন গবাদীপশুর ও মৎস্য উন্নয়নে সার্ভিস প্রোভাইডার সৃষ্টি;
  • প্রকল্প এলাকায় উদ্যোক্তা উন্নয়নের লক্ষ্য ৭,৮০০ সুফলভোগীকে বিভিন্ন আয়বর্ধনমূলক কর্মকান্ডের উপর প্রশিক্ষণ প্রদান। এছাড়াও ২০০ জন সুফলভোগী সদস্যকে যথাক্রমে- House Keeping, টেইলরিং, হস্তশিল্প, ড্রাইভিং ও মেকানিক্স, রেফ্রিজারেটর মেরামত, মোবাইল সার্ভিসিং এবং বিউটি পার্লারত, কম্পিউটার, আউটসোর্সিং ইত্যাদি বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান করে তাদেরকে দক্ষ জনবলে রম্নপামত্মর ইত্যাদি বিষয়ে সেল্ফ হেল্প গ্রুপ ধারনায় স্ব-কর্মসংস্থানমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করে দেশে ও বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা হবে
  • উপজেলায় কৃত্রিম প্রজনন, তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর গবাদীপশু পালন ও উন্নয়ন প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণে ৫৬০ জনকে দক্ষ জনশক্তিতে রূপান্তর করা হবে;
  • বিদ্যুৎ বঞ্চিত এলাকায় ৫০টি সৌরশক্তি নির্ভর স্বয়ংক্রিয় রোড লাইট স্থাপন।

 

উল্লেখযোগ্য অগ্রগতিঃ

  • প্রকল্পের চুড়ান্ত অনুমোদন ও জনবল নিয়োগ সর্ম্পূণ হয়েছে।
  • প্রকল্পের জন্য একটি গাড়ী ক্রয় করা হয়েছে।
  • প্রকল্পের সুবিধাভোগী নির্বাচন কাজ চলমান রয়েছে।
Conceptual Frame Work of Proposed Project Conceptual Frame Work of Proposed Project


Share with :

Facebook Facebook